করোনা আপডেটকলকাতাখবররাজ্য

করোনা পরিস্থিতিতে জীবনের ঝুঁকি নিয়েও মানুষের পাশে পৃথ্বীজিৎ ও তাঁর সংস্থা

বর্তমানে গোটা দেশজুড়ে করোনা পরিস্থিতি ভয়াবহ। এই অবস্থায় অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়াতে সাধ্যমত এগিয়ে আসছেন সকলেই। সেলেব থেকে শুরু করে সাধারণ মানুষ, রাজনীতিবিদ থেকে পুলিশ প্রশাসন আর অবশ্যই ডাক্তার-নার্স-স্বাস্থ্যকর্মীরা। ব্যক্তিগত সুবিধা-অসুবিধা ভুলে, কীভাবে একযোগে সকলে মিলে সুস্থ হয়ে ওঠা যায় সেই লক্ষ্যেই এখন সকলে ব্রতী। সোশ্যাল মিডিয়ায় সাহায্যের আর্জি পোস্ট করা থেকে শুরু করে ফান্ড তৈরি করা, খাবারের সাহায্য করা, সব কাজই অনেকে করছেন সাধ্যমত। সেই তালিকাতেই নতুন সংযোজন কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের তরুণ গবেষক-ছাত্র পৃথ্বীজিৎ মুখার্জী।

রাজাবাজার সায়েন্স কলেজের ছাত্র পৃথ্বীজিৎ এই পরিস্থিতিতে মানুষের পাশে দাঁড়াতে গঠন করেছেন ‘রেডিও একটিভ ইন্ডিয়া ফাউন্ডেশন’। বরানগর, চিৎপুর, কাশীপুর এবং সিঁথি থানার থেকে লিখিত অনুমতি নিয়ে উত্তর কলকাতার বিভিন্ন অঞ্চলে এই ভয়াবহ অবস্থায় সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিচ্ছেন তাঁরা। ছোটদের কেক, বিস্কুট, মুড়ির মতো টিফিন থেকে শুরু করে চাল, ডাল, আলু, পিঁয়াজ, সোয়াবিনের মতো নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিস পৌঁছে যাচ্ছে শহরজুড়ে। শুধু করোনাকালে সাহায্যই নয়, এর আগে প্রাকৃতিক দুর্যোগের সময়েও মানুষের পাশে এসে দাঁড়িয়েছে এই সংস্থা। বাগবাজারে মায়ের বাড়ি সংলগ্ন এলাকায় গতবছর আগুন লেগে যে বস্তির অধিকাংশ অঞ্চল পুড়ে যায়, সেখানেও ১০৫-টি পরিবারের হাতে প্রয়োজনীয় খাবার, রেশন সামগ্রী তুলে দেন তাঁরা।

দমদম, বরানগর সংলগ্ন এলাকাতেও দুর্যোগে পড়া পরিবারগুলোর কাছে পৌঁছে যাচ্ছে তাঁদের সাহায্য। ফলে একথা বলতে কোনও দ্বিধা নেই, এই সংকটময় পরিস্থিতিতে পৃথ্বীজিৎ মুখার্জী এবং তাঁর সংস্থা ‘রেডিও একটিভ ইন্ডিয়া ফাউন্ডেশন’-এর এই উদ্যোগ আলাদা প্রশংসার দাবী রাখে। পৃথ্বীজিৎ ছাড়াও তাঁর যে বন্ধুরা এই উদ্যোগে পাশে এসে দাঁড়িয়েছেন তাঁরা হলেন – সোনালী কুড়ি (কানাডা), শীর্ষেন্দু পন্ডিত, কৌস্তভ দত্ত, অভিনব দে, সৌরভ পন্ডিত, সপ্তর্ষি চক্রবর্তী, সুদীপ্ত মুখার্জী, সৈকত সরখেল, তপোময় ব্যানার্জী সহ আরও অনেকে।

নিবিড় ডেস্ক

About author

Articles

সমাজ ও সংস্কৃতির বাংলা আন্তর্জাল পত্রিকা ‘নিবিড়’। বহুস্বর এবং জনগণের সক্রিয়তা আমাদের রাজনৈতিক অবস্থান।
নিবিড় ডেস্ক

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *