গৃহস্থালিদৈনন্দিনফিচার

ব্যান্ডেল চিজ – বাংলার জন্য পর্তুগিজ উপহার

দেশের পর্তুগিজ কলোনি বলতে প্রথমেই আমাদের মাথায় আসে গোয়ার কথা। কিন্তু আরও কিছু ছোট পর্তুগিজ উপনিবেশ ছিল দেশের নানা প্রান্তে। হুগলির ব্যান্ডেল তার মধ্যে অন্যতম। বাংলায় চিজের জন্মস্থান কিন্তু এই ব্যান্ডেলেই। পর্তুগিজরা যখন বাংলায় এসে…
গৃহস্থালিদৈনন্দিন

বিরিয়ানির পাত্রে কেন লাল কাপড় থাকে?

মুঘল আমলে সবচেয়ে জনপ্রিয় খাবার ছিল বিরিয়ানি। তবে বিরিয়ানির জন্ম কীভাবে বা এর স্রষ্টা কে, তা নিয়ে কিন্তু যথেষ্ট মতভেদ আছে। কারণ বৈদিক যুগেও ঘি, সুগন্ধি মশলা, চাল ও মহিষের মাংস মিশ্রিত খাবারের কথা বর্ণিত…
গৃহস্থালিদৈনন্দিনফিচার

মুগের জিলিপি বানাবেন কীভাবে?

মেলায় গিয়ে জিলিপির রসে মন ডোবাননি এমন বাঙালি খুঁজে পাওয়া ভার। এই জিলিপি কিন্তু হয় বহুধরনের। কখনও ময়দা ও চিনির মিশেল। কখনও মুগের ডাল আবার কখনও ছানা। বাঙালিকে সে রসালো আনন্দ দেয় প্রতি প্যাঁচের ভাঁজে…
গৃহস্থালিদৈনন্দিনফিচার

লোভনীয় মিষ্টি দরবেশ বানাবেন কীভাবে?

বাঙালি ও মিষ্টি যেন একে অপরের পরিপূরক। আমাদের রীতিতে শিশু ভূমিষ্ঠ হওয়ার পর প্রথমেই নবজাতকের মুখে মধু দেওয়ার রীতি প্রচলিত আছে, যা প্রাচীনকাল থেকেই চলে আসছে। বাংলার নানা দিকে ছড়িয়ে রয়েছে রকমারি স্বাদ ও গঠনের…
গৃহস্থালিদৈনন্দিন

লুচির স্বাদ-গন্ধের রেশ খেলে বাঙালি জীবনের পরতে পরতে

সমস্ত বাঙালির ভোজনের পাতে আর সেই সঙ্গে মনের পটে যে পদটি বিশেষভাবে জড়িয়ে আছে সেটি হলো লুচি। যার স্বাদ-গন্ধের রেশ খেলে বেড়ায় বাঙালি জীবনের পরতে পরতে। ‘লুচি’ নামটি শুনে একটু ভাবলে মনে হবে এটা কী…
গৃহস্থালিদৈনন্দিনফিচার

মালপোয়া খাওয়া হত সেই বৈদিক যুগেও

মালপোয়া বা মিষ্টি পিঠের মতো জলখাবার বাংলা, ওড়িশা, বিহার ও মহারাষ্ট্রে খুব জনপ্রিয়। এটি সাধারণত ভাজা মিষ্টি, কিন্তু একে শুকনো বা রসালোও করা যেতে পারে। ওড়িশা ও আহমেদাবাদের জগন্নাথ মন্দিরে জগন্নাথদেবকে সকালের পুজোয় জলখাবার বা…
গৃহস্থালিদৈনন্দিনফিচার

মন মজিয়ে দিচ্ছে হরেক রকম স্যালাড

দিনে দিনে ডায়েটে স্যালাডের গুরুত্ব বাড়ছে। আগে নেমন্তন্ন বাড়ি বা রেস্তোরাঁয় বড়োজোর একধরনের স্যালাডেরই বন্দোবস্ত থাকত। তাও বড়োই অবহেলা করে তা খেত লোকে। কিন্তু এখন সব খাবারের পাশাপাশিই স্যালাডের স্পেশাল কাউন্টার করা থাকে। আর তাতে…
খবরগৃহস্থালিদেশবিদেশ

বাংলাদেশি তরুণীর সঙ্গে সাতপাকে বাঁধা পড়লেন তামিল মহিলা, ছয় বছরের প্রেমের পরিণতি

এ যেন এক রূপকথার গল্প! অবশেষে ছয় বছরের প্রেম পরিণতি পেল। আরও এক সমপ্রেমী বিবাহের সাক্ষী থাকল দেশ। ভারতীয় সুবিক্ষা সুব্রমণি ও বাংলাদেশি টিনা দাসের চার হাত এক হল। সুবিক্ষা কর্মসূত্রে কানাডায় থাকেন। তিনি যে বাইসেক্সুয়াল, তা…