প্রবন্ধফিচার

সাড়ে চারশ বছর ধরে কালী আরাধনায় নিমগ্ন বনগাঁয় মুখোপাধ্যায় পরিবার

সাড়ে চারশ বছর ধরে কালী সাধনায় নিমজ্জিত বনগাঁর মুখোপাধ্যায় পরিবার নিরবিচ্ছিন্নভাবে চৌদ্দ পুরুষ ধরে চালিয়ে যাচ্ছেন প্রতি বছর কালী পুজো।শুধু একটি পুজোকে কেন্দ্র করে একটি বহুধা বিভক্ত ছিন্ন পরিবার একত্র হয়ে যেতে পারে এবং থাকতে…
দেশপ্রবন্ধবিদেশমনন-অনুধাবন

খিদে নিয়েও আমি দেশান্তরী হতে চাই না

এই দেশকে পাকিস্তান বানানো সম্ভব? প্রশ্নটা ভেবে দেখার মতো। যখন মৌলানা আজাদ কলেজে পড়াতাম তখন ভেবেছি অনেক এই নিয়ে। দেখেছি বিত্তশালী মুসলমানদের বিপুল প্রভাব। তবু কদাচ ভাবিনি ওদেশে যাব পাকাপকিভাবে বাস করতে। বা ভাবিনি ওদের…
প্রবন্ধমনন-অনুধাবনরাজ্য

মহাত্মাজিকে যিনি ‘অসুর’ বানালেন, তিনি সুকুমার রায়ের ষষ্ঠীচরণ নন

একে কী বলব – সাহস, না দুঃসাহস? বোঝাই যাচ্ছে যিনি ‘অসুর’ বানালেন মহাত্মাজিকে, তিনি সুকুমার রায়ের ষষ্ঠীচরণ নন। তিনি যা করেছেন তা খেলাচ্ছলে নয়। তবে, এমন হতেই পারে যে, তিনি ভেবেছিলেন, যে মহাত্মা নেতাজিকে ছুরি…
প্রবন্ধমনন-অনুধাবন

পুজোর আগে কার কার মন ভালো নেই

মন ভালো নেই চিতার, মন ভালো নেই তার পালক পিতা বা আমার দেশের প্রধানমন্ত্রীর। মন ভালো নেই পার্থবাবুর, মন ভালো নেই অর্পিতা দিদির, মন ভালো নেই রাজ্যের মানুষের। কতজনের যে মন ভালো নেই তার তালিকা…
প্রবন্ধমনন-অনুধাবন

ঘনাদা নট আউট!

ঘনাদা নট আউট! এই নামে কোন গল্প প্রেমেন্দ্র মিত্র লিখেছেন কিনা জানি না। তবে এটকু নিশ্চিত জানি যে, প্রেমেন্দ্র তো থাকতেন হরিশ চ্যাটার্জি স্ট্রিটেই। আহা! এখন যদি থাকতেন ঘনাদা। ঘনাদা বলতে বোধ হয় পারতেন কে…
খেলাপ্রবন্ধফিচার

সাপ লুডো তো খেলেন, এর অজানা ইতিহাস জানেন কি!

Snake and ladders’, অর্থাৎ সাপ লুডো খেলা একটি আন্তর্জাতিক খেলা এবং বাণিজ্যিকভাবেও বহুল প্রচলিত। এই খেলা বহু প্রাচীন কালে ভারতের মাটিতেই তৈরি। তবে খেলা হিসাবে নয় বরং এক বিশেষ উদ্দেশ্যে শিশুদের ‘কর্ম’ বিষয়ে নীতি শিক্ষা…
দেশপ্রবন্ধফিচার

যে কারণে রহস্যময় বিকট শব্দে কেঁপে উঠেছিল যোধপুর!

১৮ ডিসেম্বর, ২০১২ দিনটা আর পাঁচদিনের মতোই একটি সাধারণ দিন ছিল যোধপুরের জন্য। কিন্তু সকাল ১১টা ৪৫ নাগাদ পরিস্থিতি হঠাৎ বদলে যায়। কান ফ্খাটানো এক বিকট শব্দে কেঁপে ওঠেন রাজস্থানের দ্বিতীয় বৃহত্তম শহরের বাসিন্দারা। সেই…
প্রবন্ধফিচারশিল্প-সংস্কৃতিসাহিত্য

আপন মনে এঁকেছিলেন ‘রবিকা’-র অন্তিম যাত্রা, রবীন্দ্রনাথ চলে গিয়েছিলেন অবনের জন্মদিনেই

তারিখটা ৭ আগস্ট, ১৯৪১। জোড়াসাঁকো তখন লোকে লোকারণ্য। একটু আগেই ‘রবিকাকা’ বিদায় নিয়েছেন চিরতরে। শোকে মুহ্যমান অবনীন্দ্রনাথ ঠাকুর দক্ষিণের বারান্দায় বসে আপন মনে এঁকে চলেছেন ছবি, তাঁর পরম প্রিয় রবিকাকার অন্তিমযাত্রার ছবি। খানিক পরে ফটক পেরিয়ে…