কলকাতাখবররাজ্য

প্রয়াত পরিচালক বুদ্ধদেব দাশগুপ্ত, শোকের ছায়া বাংলার সংস্কৃতি মহলে

মারা গেলেন কবি, পরিচালক বুদ্ধদেব দাশগুপ্ত। দীর্ঘদিন ধরেই কিডনির অসুখে ভুগছিলেন বাংলার প্রবীণ এই পরিচালক। বৃহস্পতিবার ভোর ৬টায় দক্ষিণ কলকাতায় নিজের বাসভবনেই শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। মৃত্যুকালে বয়স হয়েছিল ৭৭ বছর।

বাংলা সিনেমা এবং বাংলা কবিতা দুই জগতেই অবাধ বিচরণ ছিল তাঁর। তৈরি করেছেন ‘বাঘ বাহাদুর’, ‘লাল দরজা’, ‘চরাচর’, ‘মন্দ মেয়ের উপাখ্যান’, ‘কালপুরুষ’, ‘উত্তরা’, ‘স্বপ্নের দিন’, ‘তাহাদের কথা’র মত একাধিক ছবি। এক সময় তাহাদের কথায় যেমন এক অন্য মিঠুন চক্রবর্তীকে উপহার দিয়েছিলেন তিনি, তেমনই শেষ বয়সে আনোয়ার কা আজিব কিসসা ছবিতে নাওয়াজউদ্দিন সিদ্দিকিকে ব্যবহার করে চমকে দিয়েছিলেন আপামর দর্শকদের।

পরাধীন ভারতে ১৯৪৪  সালে পুরুলিয়ার আরায় জন্ম বুদ্ধদেব দাশগুপ্তর। আমৃত্যু পুরুলিয়ার অনুষঙ্গ ঘুরে-ফিরে এসেছে তাঁর প্রতিটি কাজে। পেশাগত জীবন শুরু অধ্যাপক হিসেবে। অর্থনীতির তত্ত্ব আর বাস্তব জীবনের দূরত্বই তাঁকে টেনে আনে রুপোলি পর্দায়। তিনি কলকাতা ফিল্ম সোসাইটির সঙ্গে যুক্ত হন। প্রথমেই বানান একটি 10 মিনিটের এক তথ্যচিত্র।

পূর্ণদৈর্ঘ্যের সিনেমা হিসেবে তাঁকে প্রথম খ্যাতি দেয় ‘দূরত্ব’। মৃণাল সেন, ঋত্বিক ঘটক, সত্যজিৎ রায়-এই ত্রয়ী বাংলা ছবিতে যে সাংস্কৃতিক জোয়ার এনেছিলেন তার যোগ্য উত্তরাধিকারী ছিলেন বুদ্ধদেব দাশগুপ্ত। অন্তত ১১টি ছবিরর জন্য নানা সময়ে জাতীয় পুরস্কার পেয়েছেন। লোকার্নো, কান, বার্লিনের মতো নামজাদা আন্তর্জাতিক ফেস্টিভ্যালে তাঁর ছবি প্রশংসিত হয়েছে। বাঙালি তাঁকে মনে রাখবে কমলকুমার মজুমদারের গল্প অবলম্বনে ‘নিম অন্নপূর্ণা’ বা ‘তাহাদের কথা’-র মতো কালজয়ী সমস্ত ছবির জন্য।

নিবিড় ডেস্ক

About author

Articles

সমাজ ও সংস্কৃতির বাংলা আন্তর্জাল পত্রিকা ‘নিবিড়’। বহুস্বর এবং জনগণের সক্রিয়তা আমাদের রাজনৈতিক অবস্থান।
নিবিড় ডেস্ক

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *