খবরদেশ

মুসলিম এলাকার জনসংখ্যা নিয়ন্ত্রণে ‘পপুলেশন আর্মি’, ঘোষণা অসমের মুখ্যমন্ত্রীর

জনসংখ্যা নিয়ন্ত্রণে অসমে এবার পপুলেশন আর্মি তৈরি করা হবে। বিধানসভায় এমনটাই জানালেন মুখ্যমন্ত্রী হিমন্ত বিশ্বশর্মা। পপুলেশন আর্মি রাজ্যের বিভিন্ন মুসলিম প্রধান এলাকায় যাবে এবং গর্ভনিরোধক বিলি করবে। পাশাপাশি তারা জনগণের মধ্যে সচেতনতা গড়ার কাজও তারা করবে বলেও জানিয়েছেন তিনি। এ ব্যাপারে ১ হাজার জনের বাহিনী গঠন করা হবে বলে জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। যে বাহিনীর সদস্যরা বিভিন্ন জায়গায় গিয়ে গর্ভনিরোধক বিলি করবেন। এছাড়াও তাঁরা জনসংখ্যা নিয়ন্ত্রণ নিয়েও জনগণের মধ্যে সচেতনতার উদ্যোগ নেবেন। অসম সরকারের তরফ থেকে ‘আশা’ কর্মীদের মধ্যে থেকে আলাদা দল গঠন করে জন্ম নিয়ন্ত্রণে সচেতনতা গড়ে তোলার ব্যাপারে চিন্তা ভাবনা করা হচ্ছে বলেও জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী।

মুখ্যমন্ত্রী দাবি করেছেন, ২০০১ থেকে ২০১১-র মধ্যে যদি হিন্দুদের মধ্যে জনসংখ্যার বৃদ্ধি ১০ শতাংশ হয়, তাহলে মুসলিমদের মধ্যে তা ২৯ শতাংশ। তিনি আরও বলেছেন, ছোট জনসংখ্যা নিয়ে অসমে হিন্দুদের জীবনধারণ অনেকটাই উন্নত। তাঁদের মধ্যে থেকে অনেকেই চিকিৎসক কিংবা প্রযুক্তিবিদ হচ্ছেন। যদিও প্রশ্ন উঠেছে মুখ্যমন্ত্রী কীভাবে এই সিদ্ধান্তে পৌঁছলেন। ইতিমধ্যেই সরকারের তরফে স্বেচ্ছায় নির্বীজকরণের পাশাপাশি দুই সন্তানের ওপর জোর দিয়ে কল্যাণমূলক প্রকল্পগুলি রূপায়ণের কথাও বলা হয়েছে।

মুখ্যমন্ত্রীর এই বিতর্কিত জনসংখ্যা নিয়ন্ত্রণের প্রস্তাবগুলি সাধারণ মানুষের মধ্যে ক্ষোভ তৈরি করেছে। এরই মাঝে অবশ্য উত্তরপ্রদেশের মতো অপর বিজেপি শাসিত রাজ্যেও জনসংখ্যা নিয়ন্ত্রণের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। বিশেষ করে পশ্চিম এবং মধ্য অসমে জনসংখ্যার চাপ রয়েছে বলেই জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। তিনি বলেছেন, সে সব জায়গায় উচ্চ জনসংখ্যা রয়েছে, সেখানকার মানুষকে সচেতন করে তোলার চেষ্টা করা হবে।

নিবিড় ডেস্ক

About author

Articles

সমাজ ও সংস্কৃতির বাংলা আন্তর্জাল পত্রিকা ‘নিবিড়’। বহুস্বর এবং জনগণের সক্রিয়তা আমাদের রাজনৈতিক অবস্থান।
নিবিড় ডেস্ক

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *